প্রচারণার গাড়িচাপায় শিশু মৃত্যুর অভিযোগ, প্রার্থিতা বাতিলের আবেদন

আজ দুপুরে জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা বরাবর অভিযোগ দেওয়া হয়
জমি নিয়ে বিরোধে শিক্ষককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ
স্টার ডিজিটাল গ্রাফিক্স

গাজীপুরে প্রচারণার গাড়ি চাপায় শিশু মৃত্যু এবং নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের আভিযোগে শ্রীপুর উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুল জলিলের প্রার্থিতা বাতিল চেয়ে জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে আবেদন করেছেন সেখানকার একজন ভোটার।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ১টার দিকে অভিযোগকারী আশিক-বিন-ইদ্রিছ দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, আজ সকালে আমি লিখিত অভিযোগ জমা দিয়েছি। জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা বরাবরে আভিযোগ জমা দিয়েছি। জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তাকে পাইনি কিন্তু অফিসে জমা দিয়ে রিসিভড কপি নিয়েছি।

লিখিত অভিযোগে আশিক বলেন, আগামী ২১ মে  শ্রীপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এই নির্বাচনে আমি একজন সাধারণ ভোটার। বর্তমানে প্রার্থীদের প্রচারনা চলছে। গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায় শ্রীপুর উপজেলার মুলাইদ গ্রামের মজিবুর রহমানের বাড়ির সামনে আনারস প্রতীকের শোডাউন হয়। শোডাউনে একাধিক গাড়ি এবং একাধিক মাইক ব্যবহৃত হয়। শোডাউনের একটি গাড়ির নিচে চাপা পড়ে ইয়াছিন (৪) নামে একটি শিশু মারা যায়। বেআইনি শোডাউনে উপজেলা পরিষদ আচরণ বিধিম লঙ্ঘন ও  নিহতের ঘটনায় ফৌজদারী অপরাধ সংঘটিত হয়েছে। এর আগেও চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুল জলিল আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন বলে জানান তিনি।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত প্রার্থীর প্রার্থিতা বাতিলসহ হত্যাকাণ্ডের দায়ে প্রার্থী ও তাদের সমর্থকদের বিরুদ্ধে ফৌজদারী মামলার আবেদন করা হয় অভিযোগে।

নিহত শিশুর নানা আবদুল হাই দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, গাড়িটি প্রচারণা কাজে ছিল। তখন মায়ের সামনেই বাচ্চাটা মারা যায়। গাড়ির ভেতর প্রচারণার লোক ছিল। আমাদের মন্দ ভাগ্য। গাড়ির ধাক্কায় প্রথমে গুরুতর আহত হয় শিশুটি। পরে হাসপাতালে নেওয়ার পর মারা যায়।

গাজীপুর জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. মামুনল করিম দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, আমি অফিসে ছিলাম না। লিখিত অভিযোগ এসেছে কি না দেখতে হবে।

অভিযোগ নিয়ে জানতে চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুল জলিলের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করলেও ধরেননি তিনি।

Comments