ডাবল ক্লিনজিং কী, কেন করবেন

অনেকেই মনে করেন, ফেসওয়াশ দিয়ে ২ বার মুখ ধোয়াকে ডাবল ক্লিনজিং বলা হয়। আসলে বিষয়টি তা নয়।
ছবি: সংগৃহীত

ত্বকের যত্নের প্রথম ও প্রধান ধাপ হলো ত্বক পরিষ্কার রাখা। ত্বকের মধ্যে জমে থাকা তেল, ময়লা, জীবাণু দূর করতে নিয়মিত মুখ পরিষ্কার করা খুবই জরুরি। তবে শুধু পানি আর ফেসওয়াশ বা সাবান দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেললেই ত্বক পরিচ্ছন্ন হয়ে গেল, এমন ধারণা ঠিক নয়।

ত্বকের যত্নে ময়েশ্চারাইজার ও সানস্ক্রিন ব্যবহার করা যেমন জরুরি, ঠিক তেমনই জরুরি ত্বককে গভীর থেকে পরিষ্কার করা। আর সেজন্যই ডাবল ক্লিনজিং গুরুত্বপূর্ণ।

ডাবল ক্লিনজিং কী

কিছুদিন আগেও ডাবল ক্লিনজিং নিয়ে মানুষের মধ্যে তেমন সচেতনতা ছিল না। ডাবল ক্লিনজিংয়ের ধারণা প্রথম মানুষের মধ্যে জনপ্রিয় করে তোলেন কোরিয়ানরা। ধারণা করা হয়, কোরিয়ানদের চেহারার তারুণ্য ও সতেজতা ধরে রাখার অন্যতম রহস্য এই ডাবল ক্লিনজিং।

অনেকেই মনে করেন, ফেসওয়াশ দিয়ে ২ বার মুখ ধোয়াকে ডাবল ক্লিনজিং বলা হয়। আসলে বিষয়টি তা নয়। ডাবল ক্লিনজিংয়ে একবার অয়েল বেজড ক্লিনজার দিয়ে মুখের ওপর জমে থাকা ময়লা তুলে ফেলা হয়। তারপর ওয়াটার বেজড বা ফোম বেজড ফেসওয়াশ দিয়ে ভালো করে ত্বক পরিষ্কার করা হয়।

 

ডাবল ক্লিনজিং কি জরুরি

স্বাস্থ্যকর ত্বক মানেই পরিচ্ছন্ন ত্বক। কারণ ত্বক পরিষ্কার না থাকলে খুব সহজেই সেখানে ব্রণ, র‍্যাশ, ছোপছোপ দাগ দেখা দিতে পারে, ত্বকের স্বাভাবিক রং বিবর্ণ ও মলিন দেখাতে পারে। ভারী মেকাপ তুলতে বা সানস্ক্রিন ব্যবহারের পর বাইরে থেকে এসে শুধু ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেললেই তা ভেতর থেকে পরিষ্কার হয়ে যায় না। এজন্যই প্রয়োজন ডাবল ক্লিনজিং।

কখন করবেন

আপনার যদি তৈলাক্ত ত্বক থাকে অথবা প্রতিদিন ভারী মেকআপ করতে হয়, সেক্ষেত্রে বাইরে থেকে এসে প্রতি সন্ধ্যায় ডাবল ক্লিনজিং করবেন। আপনার ত্বক যদি শুষ্ক হয় বা সেরকম তৈলাক্ত না থাকে, সেক্ষেত্রে প্রতিদিন ডাবল ক্লিনজিং করার প্রয়োজন নেই। যদি আপনি কেবল মাঝেমাঝে মেকআপ করে থাকেন, সেক্ষেত্রে কেবল মেকআপ তুলতে ডাবল ক্লিনজিং করুন। তবে সানস্ক্রিন ব্যবহার করলে মেকআপ করুন আর না করুন, আপনাকে অবশ্যই ডাবল ক্লিনজিং করতে হবে।

কেন করবেন

ত্বকের ভেতর জমে থাকা তৈলাক্ত ভাব ও ময়লা দূর করতে এবং ত্বক থেকে নিখুঁতভাবে মেকআপ ও অন্যান্য প্রসাধনী দূর করতে ডাবল ক্লিনজিং খুবই কার্যকরী। সানস্ক্রিন, মেকআপ লাগানোর পর শুধু ফেসওয়াশ ব্যবহার করলে এগুলো ত্বক থেকে উঠে না। উল্টো ত্বকের লোমকূপ বন্ধ করে দেয়। এতে ত্বকের ভেতর জমে থাকা তেল, ময়লা আটকে যায় ও ত্বকে বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয়। ডাবল ক্লিনজিং করলে ত্বক গভীরভাবে পরিষ্কার হয়। ত্বকে ব্রণ হওয়ার ঝুঁকিও কমে যায় অনেকাংশে।

কীভাবে করবেন

● প্রথমে ত্বকে ওয়েল বেজড ক্লিনজার বা মাইসেলার ওয়াটার ম্যাসাজ করতে তুলার প্যাড বা নরম কাপড় ব্যবহার করুন। এটি মুখের সারফেস লেভেলের মেকআপ, সিবাম ও সানস্ক্রিন তুলে ফেলতে সাহায্য করে। আগে চোখের মেকআপ, তারপর ঠোঁটের লিপস্টিক তুলুন। তারপর আস্তে আস্তে পুরো মুখ তুলা দিয়ে আলতো ঘষে পরিষ্কার করুন।

● তারপর পানি দিয়ে মুখ ভিজিয়ে নিন। 

● এবারে দ্বিতীয় ক্লিনজার বা আপনার ত্বকের জন্য মানানসই ফেসওয়াশ বা ক্লিনজার দিয়ে সাধারণ নিয়মে মুখ পরিষ্কার করে ভালো করে ধুয়ে ফেলুন।

● ক্লিনজিংয়ের পর ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে ভুলবেন না।

সতর্কতা

যদি কখনো ডাবল ক্লিনজিং না করে থাকেন, তবে ত্বকের ধরন বুঝে এখনই শুরু করুন। তবে ক্লিনজার ব্যবহারের সময় খেয়াল করুন, এটি আপনার ত্বকে মানানসই কি না।  দিনে ১-২ বারের বেশি ডাবল ক্লিনজিং না করাই ভালো। সবশেষে ত্বকে অবশ্যই ভালো মানের ময়েশ্চারাইজার লোশন বা ক্রিম লাগিয়ে নিতে হবে। নয়তো ত্বক শুষ্ক হয়ে স্বাভাবিক আর্দ্রতা হারিয়ে ফেলবে।

তথ্যসূত্র: ডার্মস্টোর, এভ্রিডে হেলথ

 

Comments

The Daily Star  | English

UP chairman ‘attacked’ in Natore over VGF rice distribution

Fingers pointed at local lawmaker’s supporters; he refutes allegation

1h ago