ক্যাম্পাস

ঢাবি শিক্ষার্থীদের মারধরের প্রতিবাদে ৩ ঘণ্টা হানিফ ফ্লাইওভার সড়ক অবরোধ

সন্ধ্যা ৬টার দিকে অমর একুশে হলের ছাত্রলীগের নেতৃত্বে শিক্ষার্থীরা মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারের প্রবেশমখে সড়ক অবরোধ করে এবং রাত ৯টার দিকে অবরোধ প্রত্যাহার করা হয়। 
সন্ধ্যা ৬টার দিকে অমর একুশে হলের ছাত্রলীগের নেতৃত্বে শিক্ষার্থীরা মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারের প্রবেশমুখে সড়ক অবরোধ করে। ছবি: সংগৃহীত

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) অমর একুশে হলের ছাত্রলীগের নেতাকর্মীসহ ৪-৫ জন শিক্ষার্থীকে মারধরের অভিযোগে মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারসহ সংলগ্ন সড়ক অবরোধ করেছে শিক্ষার্থীরা।

আজ বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টার দিকে সিটি করপোরেশনের স্থানীয় ২৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হাসিবুর রহমান মানিকের কর্মীদের বিরুদ্ধে এ মারধরের অভিযোগ ওঠে।

পরে সন্ধ্যা ৬টার দিকে অমর একুশে হলের ছাত্রলীগের নেতৃত্বে শিক্ষার্থীরা হল সংলগ্ন মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারের প্রবেশমুখ, আনন্দবাজার, চানখাঁরপুল মোড়ে সড়ক অবরোধ করে।

পরে ঢাবি ছাত্রলীগের সভাপতি মাজহারুল কবির শয়ন ও সাধারণ সম্পাদক তানভীর হাসান সৈকতের হস্তক্ষেপে রাত ৯টার দিকে অবরোধ প্রত্যাহার করা হয়। 

আহতদের মধ্যে একুশে হলের সাংগঠনিক সম্পাদক রাশেদুল রায়হান ও আরেক শিক্ষার্থী মুখতাসিম বিল্লাহ নিপুর অবস্থা গুরুতর হবে জানা গেছে।   

শিক্ষার্থীরা জানান, বিকেল ৫টার দিকে কাউন্সিলর মানিকের কয়েকজন অনুসারী অমর একুশে হলের সামনে দিয়ে উল্টো রাস্তায় যাচ্ছিলেন। এসময় হলের শিক্ষার্থীরা তাদের বাধা দিলে বাগবিতণ্ডা শুরু হয়। পরে সেখানে উপস্থিত সাধারণ শিক্ষার্থীসহ ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মীকে মারধর করে ওই মোটরসাইকেল আরোহীরা।

একুশে হলের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আশফাক সরকার আবির দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'সাধারণ শিক্ষার্থীদের ওপর কাউন্সিলরের অনুসারীদের হামলার প্রতিবাদে শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ করেছে।'

'আমরা কাউন্সিলের অনুসারীদের বিচার দাবি করে আল্টিমেটাম দিয়েছি,' বলেন তিনি। 

এ বিষয়ে জানতে কাউন্সিলর হাসিবুর রহমান মানিককে রাতে কয়েকবার ফোন দিলেও, তিনি ফোন ধরেননি।

 

Comments