জেলে টিভি-রেডিও মেরামতের কাজ শিখছেন রবিনহো

অথচ তার নামটা এখন থাকতে পারতো মেসি-রোনালদোদের কাতারে

'নতুন এক পেলে এসে গেছে যার মধ্যে সম্ভাবনা আমার চেয়েও বেশী এবং সৌভাগ্যবশত সে আমার সাবেক ক্লাব সান্তোসেই খেলছে,' রবিনহোকে নিয়ে এই কথাগুলো বলেছিলেন স্বয়ং পেলে। যে অমিত প্রতিভা নিয়ে ফুটবল অঙ্গনে এসেছিলেন এই ব্রাজিলিয়ান, তাতে হয়তো মেসি-রোনালদোদের পাশেই থাকতো তার নাম, কিংবা আগে। অথচ সেই খেলোয়াড় কি-না হারিয়ে গেছেন কালের গর্ভে।

তবে একেবারেই যে হারিয়ে গেছেন তাও নয়। সাম্প্রতিক সময়ে নানাভাবেই শিরোনাম হয়েছেন রবিনহো। তার প্রত্যেকটাই নেতিবাচক সংবাদ। মিলানের একটি নাইটক্লাবে এক নারীকে গণধর্ষণের পর নয় বছরের কারাদণ্ড পেয়েছেন। ইতালি থেকে পালিয়েও রক্ষা হয়নি তার। নিজ দেশে এসে এই দন্ড ভোগ করছেন তিনি।

আর জেলে এখন টিভি-রেডিও মেরামতের কাজ শিখছেন এই ফুটবলার। বেসিক ইলেকট্রনিক্সে বেশ দক্ষ হয়ে উঠছেন জানিয়ে রবিনহোর আইনজীবী মারিও রোসো ভ্যালে বলেছেন, 'রবিনহো মাথা নিচু রেখে চুপচাপ কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন... তিনি একজন আদর্শ কয়েদী এবং অন্য কয়েদীদের সঙ্গে তার কোনো সমস্যা নেই। এমনকি তারা তাকে কিছু ফুটবল বুট দিয়েছে। বিনোদনের সময় খেলায় যোগ দেওয়ার জন্য।'

'সে নিজেকে ব্যস্ত রাখছে। সে একটি বেসিক ইলেকট্রনিক্স কোর্সের জন্য সাইন আপ করেছে কীভাবে টিভি এবং রেডিও মেরামত করতে হয় তা শেখার জন্য। এই কাজে যোগ্যতা অর্জনের জন্য তাকে ৬০০ ঘন্টা দূরবর্তী শিক্ষাগ্রহণ করতে হবে। সে এটা উপভোগ করছে কি না তা বলা কঠিন, তবে এটি সময় পার করতে সাহায্য করছে,' যোগ করেন রবিনহোর আইনজীবী।

২০১৩ সালে এসি মিলান ক্লাবে থাকাকালীন সময়ে ইতালির উত্তরাঞ্চলের শহর মিলানের একটি নাইট ক্লাবে নিজের ২৩তম জন্মদিন পালন করছিলেন এক আলবেনিয়ান নারী। সেখানেই সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হন তিনি। তাতে জড়িত ছিলেন রবিনহো ও তার বন্ধু রিকার্ডো ফ্যালকোসহ মোট ছয় জন। পরে ২০১৭ সালে অভিযোগ প্রমাণ হওয়ায় ৯ বছরের জেল দেওয়া হয় রবিনহোকে।

তখন জেলের শাস্তি এড়াতে ইতালি থেকে পালিয়ে দেশে ফিরে আসেন। এরপর ২০২০ সালে ব্রাজিলে থেকেই শাস্তি বিরুদ্ধে আপিল করেন। কিন্তু শাস্তি বহাল থাকে। রবিনহোর বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন ইতালিয়ান প্রসিকিউটররা। পালিয়ে থাকায় ব্রাজিলেই শাস্তি কার্যকর করার অনুরোধ করেন তারা। ব্রাজিলের সুপিরিয়র কোর্ট অফ জাস্টিস তা মেনে নিলে জেলে যেতে হয় রবিনহোকে।

সান্তোসে ফুটবল ক্যারিয়ার শুরুর পর রিয়াল মাদ্রিদে ১৩৭টি ম্যাচ খেলেছিলেন রবিনহো। এরপর ম্যানচেস্টার সিটি হয়ে খেলেছেন ৫৩টি ম্যাচ। এসি মিলানে ১৪৪টি ম্যাচ খেলার পর আরও বেশ কিছু ক্লাব ঘুরে ফিরেছিলেন সান্তোসে। জাতীয় দলের হয়ে ১০০ ম্যাচ খেলে ২৮টি গোল দিয়েছিলেন এই ব্রাজিলিয়ান।

Comments

The Daily Star  | English

Last-minute cattle purchase: Markets abuzz with buyers in Ctg, thin turnout in Dinajpur

The cattle markets in Chattogram city are abuzz with buyers on the last day before Eid-ul-Azha. The markets in Dinajpur, however, are experiencing the opposite scenario with not many buyers even at the last moment

1h ago