ডি ইয়ংয়ের ছিটকে যাওয়ায় বার্সাকে দুষছেন ডাচ কোচ

ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে ছিটকে গিয়েছেন বার্সেলোনার মিডফিল্ডার ফ্র্যাঙ্কি ডি ইয়ং

ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ শুরু হতে আর চার দিন বাকি। এর আগে বড় ধাক্কা খেয়েছে নেদারল্যান্ডস। এই আসরে আর খেলা হচ্ছে না দলের অন্যতম সেরা তারকা ফ্র্যাঙ্কি ডি ইয়ংয়ের। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে চোট কাটিয়ে উঠতে পারবেন না তিনি। তাতে তার ক্লাব বার্সেলোনার উপর খেপেছেন ডাচ কোচ রোনাল্ড কুমান।

বুধবার প্রীতি ম্যাচে আইসল্যান্ডকে ৪-০ গোলের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে ডাচরা। আসর শুরুর আগে স্বাভাবিকভাবেই তা বাড়তি আত্মবিশ্বাস দিবে দলটিকে। তবে একই সঙ্গে ডি ইয়ংকে হারানোর দুঃসংবাদও শোনে দলটি। অ্যাঙ্কেলের চোট এখনও কাটিয়ে উঠতে পারেননি এই মিডফিল্ডার।

ডি ইয়ংয়ের এই চোট অবশ্য বেশ পুরনো। তবে ইউরো শুরুর আগে এই চোট কাটিয়ে উঠবেন বলে আশায় ছিলেন কুমান। তবে যথা সময়ে এই মিডফিল্ডারের সেরে ওঠার কোনো সম্ভাবনা নেই বলে জানিয়ে দিয়েছেন চিকিৎসকরা। তার জায়গায় চেলসির ডিফেন্ডার ইয়ান ম্যাটসেনকে দলে নিয়েছে দলটি।

ডি ইয়ংয়ের ছিটকে যাওয়া নিয়ে কুমান বলেন, 'পরীক্ষায় দেখা গেছে, সে এখনও ওই কাজগুলো করতে পারে না, যেগুলো তার করতে পারা উচিত। প্রতিবার অনুশীলনের পর তার অ্যাঙ্কেলে সমস্যা হয়। এতে এই সিদ্ধান্তে পৌঁছানো যায় যে, আগামী তিন সপ্তাহে সে শতভাগ ফিট থাকবে না। আমি আগে থেকেই বুঝেছিলাম পোল্যান্ডের বিপক্ষে তার খেলা কঠিন হবে।'

আর এই মিডফিল্ডারকে হারানোর ধাক্কা সহজে হজম করতে পারছেন না সাবেক বার্সেলোনা কোচ কুমান। স্প্যানিশ ক্লাবটি তার ঠিকঠাক যত্ন না নিয়ে তাকে নিয়ে অতিরিক্ত নিয়েছেন বলে অভিযোগ করেন এই কোচ, 'তারা (বার্সেলোনা) ফ্র্যাঙ্কির ব্যাপারে ঝুঁকি নিয়েছে, আর এখন আমরা এর ধাক্কা সইছি।'

এদিকে ইউরো থেকে ছিটকে যাওয়ায় হতাশ ডি ইয়ংও, 'ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে থাকতে না পারায় আমি বিষণ্ণ ও হতাশ। আমাদের পক্ষে যা করা সম্ভব, সবই আমরা সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে করেছি। দুর্ভাগ্যজনকভাবে আমার অ্যাঙ্কেলের আরও সময় প্রয়োজন।'

আগামী রোববার থেকে জার্মানিতে শুরু হতে যাচ্ছে এবারের ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ। তবে এর পরদিন পোল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে ইউরো মিশন শুরু করবে নেদারল্যান্ডস।

Comments

The Daily Star  | English

Last-minute cattle purchase: Markets abuzz with buyers in Ctg, thin turnout in Dinajpur

The cattle markets in Chattogram city are abuzz with buyers on the last day before Eid-ul-Azha. The markets in Dinajpur, however, are experiencing the opposite scenario with not many buyers even at the last moment

51m ago