অমুসলিম শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দিতে ভারতের লোকসভায় বিল পাস

ধর্মীয় সহিংসতার শিকার হয়ে প্রতিবেশী দেশ থেকে আসা অমুসলিম শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দিতে ভারতের লোকসভায় একটি বিল পাস হয়েছে। বিতর্কিত এই বিল আইনে পরিণত হলে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান থেকে মুসলিম ছাড়া অন্য সম্প্রদায়ের যারা ভারতে আশ্রয় নিয়েছেন তাদের নাগরিক হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হবে।
ভারতের লোকসভা ভবনের ফাইল ছবি

ধর্মীয় সহিংসতার শিকার হয়ে প্রতিবেশী দেশ থেকে আসা অমুসলিম শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দিতে ভারতের লোকসভায় একটি বিল পাস হয়েছে। বিতর্কিত এই বিল আইনে পরিণত হলে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান থেকে মুসলিম ছাড়া অন্য সম্প্রদায়ের যারা ভারতে আশ্রয় নিয়েছেন তাদের নাগরিক হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হবে।

হিন্দু, বৌদ্ধ, জৈন, পার্সি, শিখ এবং খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের মানুষদের অমুসলিম শরণার্থীর তালিকায় রাখা হয়েছে।

লোকসভায় এই বিল উত্থাপনের পর থেকেই উত্তপ্ত ভারতের রাজনৈতিক অঙ্গন। এই বিল ঘিরে সরকারের সমালোচনা করে আসামের জোট সরকার থেকে সমর্থন তুলে নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে ওই রাজ্যের গুরুত্বপূর্ণ দল আসাম গণ পরিষদ। যদিও সব সমালোচনা অগ্রাহ্য করেই মঙ্গলবার লোকসভায় এই বিল পাস করাল মোদি সরকার।

বিলটির সমালোচকদের দাবি, এমন আইন হলে প্রতিবেশী দেশগুলোর সংখ্যালঘু সম্প্রদায়কে ভুল বার্তা প্রদান করা হবে। এমনকি দলে দলে লোক ভারতে গিয়ে নাগরিকত্ব দাবি করতে পারে বলেও আশঙ্কা করছেন তারা।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়, কংগ্রেসসহ ভারতের অপরাপর বামপন্থী দলগুলোও এই বিলের সমালোচনায় সরব হয়েছে। তারা বলছে, কোনো নির্দিষ্ট সম্প্রদায়ের বাইরের লোকদের নাগরিকত্ব দেওয়ার এমন আইন ভারতের সংবিধানের মূলনীতির সঙ্গে সাংঘর্ষিক।

ভারতের নাগরিকত্ব আইন ১৯৫৫ সালে পাস হয়। এখন এই আইন সংশোধন হলে ২০১৪ সালের ৩১ ডিসেম্বরের আগে প্রতিবেশী দেশে ধর্মীয় সহিংসতার শিকার হয়ে ভারতে প্রবেশকারী হিন্দু, শিখ, বৌদ্ধ, জৈন, পার্সি ও খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের লোকজনকে নাগরিকত্ব দিতে পারবে দেশটির সরকার।

Comments

The Daily Star  | English

How Lucky got so lucky!

Laila Kaniz Lucky is the upazila parishad chairman of Narsingdi’s Raipura and a retired teacher of a government college.

5h ago