গাজা শহর ঘিরে ফেলার দাবি ইসরায়েলি বাহিনীর, হুঁশিয়ারি হামাসের

হামাস বলেছে, ইসরায়েলের ‘অভিশপ্ত ইতিহাস’ হবে গাজা।
গাজার নুসাইরাত শরণার্থী শিবিরে ইসরায়েলি হামলা ঘর হারিয়ে খোলা আকাশের নিচে নারী-শিশুরা। ছবি: এএফপি

গাজা শহর ঘিরে ফেলা হয়েছে এবং গাজায় অভিযান আরও 'তীব্র' হয়েছে বলে দাবি করেছে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী।

এদিকে ফিলিস্তিনি সংস্থা হামাস বলেছে, ইসরায়েলের 'অভিশপ্ত ইতিহাস' হবে গাজা।

বৃহস্পতিবার ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা বাহিনীর (আইডিএফ) চিফ অব স্টাফ লেফটেন্যান্ট জেনারেল হারজি হালেভি এক টিভি সাক্ষাৎকারে বলেন, 'আমাদের সেনারা গত কয়েকদিন ধরে গাজা সিটিকে বিভিন্ন দিক থেকে ঘিরে ফেলেছে। অভিযান আরও গভীর হচ্ছে।'

তিনি আরও বলেন, 'আমাদের বাহিনী গাজা শহরের গুরুত্বপূর্ণ এলাকাগুলোতে অবস্থান নিয়েছে।'

এদিকে বার্তাসংস্থা এএফপি জানিয়েছে, গাজা ইসরায়েলের জন্য 'অভিশাপ' হয়ে দেখা দেবে বলে হামাসের সামরিক শাখা হুঁশিয়ারি দিয়েছে।

হামাসের সশস্ত্র শাখা ইজ আল-দ্বীন আল-কাশাম ব্রিগেডের মুখপাত্র আবু ওবেদা বলেছেন, 'ইসরায়েলের জন্য অভিশপ্ত ইতিহাস হয়ে দেখা দেবে গাজা। ইসরায়েলি সেনাদের "কালো ব্যাগে" বাড়ি ফিরতে হবে।'

এদিকে ইসরায়েলের সামরিক মুখপাত্র ড্যানিয়েল হাগারি বলেছেন, 'যুদ্ধবিরতির আলোচনা কোনো টেবিলে নেই। আইডিএফ হামাসকে ধ্বংস করতে যুদ্ধ পরিচালনা করছে।'

গাজা শহরকে তিনি 'হামাসের কার্যক্রমের কেন্দ্র' বলে উল্লেখ করেন।

গাজায় সেনা ও ট্যাংক বহর পাঠিয়ে যাচ্ছে ইসরায়েল। ছবি: সংগৃহীত

গত শুক্রবার ইসরায়েলি সেনাবাহিনী গাজায় স্থল অভিযান শুরু করে। ট্যাঙ্ক, বুলডোজার, পদাতিক বাহিনী এবং যুদ্ধ প্রকৌশল ইউনিট প্রবেশ করে গাজায়। 

স্থল অভিযান ধীরে ধীরে চললেও, বিমান হামলা অব্যাহত রেখেছে ইসরায়েল।

উত্তর গাজার ঘনবসতিপূর্ণ জাবালিয়া শরণার্থী শিবিরে বুধবার আবারও বোমাবর্ষণ করে ইসরায়েল। বুধবার সন্ধ্যা থেকে বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত হামলা অব্যাহত ছিল।

সর্বশেষ হামলায় জাবালিয়া এবং আল শাতি শরণার্থী শিবিরে জাতিসংঘের স্কুলে আশ্রয় নেওয়া ২০ জনেরও বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়।

ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বৃহস্পতিবার জানায়, গত ৭ অক্টোবর থেকে গাজায় ইসরায়েলি হামলায় অন্তত ৯ হাজার ২৫ জন নিহত হয়েছেন এবং আহত হয়েছেন ২২ হাজারের বেশি মানুষ।

এরমধ্যেই গাজা শহরের আল কুদস হাসপাতালের আশেপাশে বিমান হামলা হয়েছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মতে, বোমাবর্ষণ ও জ্বালানি সংকটের কারণে গাজার প্রায় অর্ধেক হাসপাতালে সেবাদান সম্ভব হচ্ছে না।

গাজার বৃহত্তম হাসপাতাল আল শিফায় যেকোনো সময় সেবাদান বন্ধ হয়ে যেতে পারে।

এদিকে ফিলিস্তিনি সংগঠন হামাস গত ৭ অক্টোবর ইসরায়েলে হামলা চালিয়ে ২৪২ জনকে অপহরণ করে জিম্মি করেছে বলে বৃহস্পতিবার সামরিক মুখপাত্র হাগারি দাবি করেছেন।

হামাস জিম্মির সংখ্যা শতাধিক বললেও, ইসরায়েল এর আগে জিম্মির সংখ্যা ২০২ জন দাবি করেছিল। ইতোমধ্যে কয়েকজন জিম্মিকে মুক্তি দিয়েছে হামাস।

ইসরায়েলের স্থল অভিযানের কারণে জিম্মিদের মুক্তি দির্ঘায়িত হচ্ছে বলে সিএনএনের প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ৩৪১ জন বিদেশি নাগরিক গাজা থেকে রাফা সীমান্ত দিয়ে মিশরে প্রবেশ করেছে। বহুদলীয় কূটনৈতিক প্রচেষ্টার পর বিদেশি নাগরিকরা গাজা ছেড়ে যাওয়ার সুযোগ পেয়েছে।

মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস বৃহস্পতিবার জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে গাজায় মানবিক সহায়তা প্রবেশ নিয়ে আলোচনা করেছেন।

জাবালিয়া ক্যাম্পে হামলাকে জাতিসংঘ মানবাধিকার দপ্তর যুদ্ধাপরাধ হিসেবে অভিহিত করছে।

 

Comments