বিনোদন

৯৭ মিলিয়ন ডলার সম্পদের মালিক টেইলর সুইফটের বিড়াল

সুইফটের বিড়াল অলিভিয়া বেনসনের মোট সম্পত্তির পরিমাণ তার প্রেমিক ট্র্যাভিস কেলসের চাইতেও বেশি।
ছবি: সংগৃহীত

কয়েকদিন আগে শুধু সংগীত ও পারফরম্যান্সের ওপর ভিত্তি করেই আনুষ্ঠানিকভাবে 'বিলিয়নিয়ার' তালিকায় প্রবেশ করেন জনপ্রিয় পপতারকা টেইলর সুইফট। একের পর এক রেকর্ড ভেঙে বর্তমানে বিশ্বের অন্যতম প্রভাবশালী তারকা তিনি।

শুধু সুইফট নন, বিশ্বের শীর্ষ ধনীর তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে তার বিড়ালও।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সুইফটের বিড়াল অলিভিয়া বেনসনের মোট সম্পত্তির পরিমাণ তার প্রেমিক ট্র্যাভিস কেলসের চাইতেও বেশি।

ক্যাটস ডট কমের মতে, অলিভিয়ার মোট সম্পত্তির পরিমাণ আনুমানিক ৯৭ মিলিয়ন ডলার। অন্যদিকে বিবিসি জানায়, টেইলর সুইফটের প্রেমিক ট্র্যাভিসের মোট সম্পত্তির পরিমাণ আনুমানিক ৪০ মিলিয়ন ডলার।

'ব্ল্যাংক স্পেস' গানের ভিডিওতে অলিভিয়া। ছবি: সংগৃহীত

অলিভিয়াকে বিভিন্ন টেলিভিশন বিজ্ঞাপনে দেখা গেছে। এছাড়া টেইলর সুইফটের 'ব্ল্যাঙ্ক স্পেস' ও 'মি!' গানের ভিডিওতেও তাকে দেখা যায়। টেইলরের আরও দুটি বিড়াল আছে— 'মেরেডিথ গ্রে' ও 'বেঞ্জামিন বাটন'। কিন্তু তাদের মোট সম্পত্তির পরিমাণ কত তা জানা যায়নি।

তবে টেইলরের বিড়াল অলিভিয়া পৃথিবীর সবচেয়ে ধনী পোষা প্রাণী নয়। বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গান্থার ফোর নামে এক জার্মান শেফার্ড আছে যার মোট সম্পত্তির পরিমাণ ৫০০ মিলিয়ন ডলার। এছাড়া ইনস্টাগ্রাম সেলিব্রিটি নালা ক্যাটও এ তালিকায় রয়েছে।

বিড়াল অলিভিয়ার সঙ্গে সুইফট। ছবি: সংগৃহীত

ব্লুমবার্গ বিলিয়নেয়ার ইনডেক্স এর তথ্য অনুযায়ী, রেকর্ড-ব্রেকিং ইরাস ট্যুরের কল্যাণে টেইলর সুইফটের মোট সম্পদ এখন ১ দশমিক ১ বিলিয়ন বা ১১০ কোটি ডলার। এই মার্কিন পপ শিল্পীর কনসার্ট ফিল্ম 'টেইলর সুইফট: দ্য ইরাস ট্যুর' যুক্তরাষ্ট্রের জিডিপিতে ৪.২ বিলিয়ন বা ৪২০ কোটি মার্কিন ডলার যুক্ত করেছে।

টেইলর সুইফট। ছবি: সংগৃহীত

টেইলর সুইফট শুধু তার সংগীত এবং পারফরম্যান্সের ওপর ভিত্তি করে এত অর্থ উপার্জন করেছেন। বিনোদন জগতে এমন অর্জন খুব কম মানুষের ঝুলিতেই রয়েছে।

শুধু তাই নয়, সম্প্রতি গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ডেও রেকর্ড গড়েন টেইলর সুইফট। বছরের সেরা অ্যালবামের জন্য চতুর্থবারের মতো গ্র্যামি জেতেন তিনি।

Comments

The Daily Star  | English

Consumers brace for price shocks

Consumers are bracing for multiple price shocks ahead of Ramadan that usually marks a period of high household spending.

3h ago